Home > বিনোদন > রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার অভিনন্দন

বিদেশ থেকে দেশে ফেরার মাত্র ১০ ঘণ্টার মধ্যেই শ্বশুরবাড়িতে খুন হয়েছেন জামাল হোসেন (৩৫) নামে এক প্রবাসী। যশোরের বেনাপোল উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে বেনাপোল পোর্ট থানার ধাণ্যখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।নিহতের স্বজনদের ধারণা, পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় জামালের স্ত্রী, শ্বশুর ও তার শাশুড়ি মিলে পেশাদার খুনিদের দিয়ে জামালকে হত্যা করিয়েছেন।এ ঘটনায় জামালের স্ত্রী আয়েশা খাতুন, শ্বশুর রিয়াজুল ইসলাম টুকু ও শাশুড়ি ফুলবুড়িকে আটক করেছে পুলিশ।জামালের ভাই রাশেদুজ্জামান জানান, প্রায় ১০ বছর আগে জামালের সঙ্গে প্রতিবেশী আয়েশার বিয়ে হয়। বিয়ের পরপরই সংসারে স্বচ্ছলতা ফেরাতে জামাল মালয়েশিয়া যান। সেখানে আয় করা অর্থ সব তিনি শ্বশুরবাড়িতে পাঠাতেন। এর মধ্যে তিনি তিনবার দেশে এসেছেন। বেশ কিছুদিন থেকে স্ত্রীর পরকীয়ার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসলে তাদের মধ্যে সম্পর্কের কিছুটা অবনতি হয়। কিন্তু তার পরেও স্ত্রীকে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন জামাল।রাশেদুজ্জামার আরও জানান, গতকাল মঙ্গলবার জামাল বিদেশ থেকে বাড়ি ফেরেন। পরে তিনি বিদেশ থেকে আনা উপহার সামগ্রী নিয়ে শ্বশুরবাড়ি যান। রাত ২টার দিকে জামালের শ্বশুরবাড়ির লোকজন চিৎকার করে- রোহিঙ্গারা জামালকে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়েছে। এ সময় ওই বাড়িতে গিয়ে ঘরের সিঁড়িতে জামালের রক্তাক্ত লাশ দেখতে পান জামালের বাড়ির লোকজন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হত্যার আলামত দেখে সত্যতা পাওয়ায় তাদেরকে আটক করে নিয়ে যায়।

বেনাপোল পোর্ট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বলেন, ‘এটা একটা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জামালের স্ত্রী, শাশুড়ি ও শ্বশুরকে আটক করা হয়েছে। আরও যারা জড়িত আছে তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।’ময়নাতদন্তের জন্য যশোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান।

উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের কাউন্সিলর আনজুয়ারা বলেন, ‘যেদিন সে বিদেশ থেকে বাড়ি ফিরল, সেদিনই তাকে হত্যা করল! এটা দুঃখজনক।’
তিনি আরও বলেন, ‘এর আগে একবার জামালকে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে তার স্ত্রী।

শেয়ার করুন :

পরকীয়ায় পথের কাটা, দেশে ফেরার ১০ ঘণ্টার মধ্যে স্বামী খুন

প্রকাশের সময়ঃ ৫:১৭ বিকাল

প্রকাশের তারিখঃ মে ১৫, ২০১৯

বিদেশ থেকে দেশে ফেরার মাত্র ১০ ঘণ্টার মধ্যেই শ্বশুরবাড়িতে খুন হয়েছেন জামাল হোসেন (৩৫) নামে এক প্রবাসী। যশোরের বেনাপোল উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে বেনাপোল পোর্ট থানার ধাণ্যখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।নিহতের স্বজনদের ধারণা, পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় জামালের স্ত্রী, শ্বশুর ও তার শাশুড়ি মিলে পেশাদার খুনিদের দিয়ে জামালকে হত্যা করিয়েছেন।এ ঘটনায় জামালের স্ত্রী আয়েশা খাতুন, শ্বশুর রিয়াজুল ইসলাম টুকু ও শাশুড়ি ফুলবুড়িকে আটক করেছে পুলিশ।জামালের ভাই রাশেদুজ্জামান জানান, প্রায় ১০ বছর আগে জামালের সঙ্গে প্রতিবেশী আয়েশার বিয়ে হয়। বিয়ের পরপরই সংসারে স্বচ্ছলতা ফেরাতে জামাল মালয়েশিয়া যান। সেখানে আয় করা অর্থ সব তিনি শ্বশুরবাড়িতে পাঠাতেন। এর মধ্যে তিনি তিনবার দেশে এসেছেন। বেশ কিছুদিন থেকে স্ত্রীর পরকীয়ার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসলে তাদের মধ্যে সম্পর্কের কিছুটা অবনতি হয়। কিন্তু তার পরেও স্ত্রীকে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন জামাল।রাশেদুজ্জামার আরও জানান, গতকাল মঙ্গলবার জামাল বিদেশ থেকে বাড়ি ফেরেন। পরে তিনি বিদেশ থেকে আনা উপহার সামগ্রী নিয়ে শ্বশুরবাড়ি যান। রাত ২টার দিকে জামালের শ্বশুরবাড়ির লোকজন চিৎকার করে- রোহিঙ্গারা জামালকে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়েছে। এ সময় ওই বাড়িতে গিয়ে ঘরের সিঁড়িতে জামালের রক্তাক্ত লাশ দেখতে পান জামালের বাড়ির লোকজন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হত্যার আলামত দেখে সত্যতা পাওয়ায় তাদেরকে আটক করে নিয়ে যায়।

বেনাপোল পোর্ট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বলেন, ‘এটা একটা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জামালের স্ত্রী, শাশুড়ি ও শ্বশুরকে আটক করা হয়েছে। আরও যারা জড়িত আছে তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।’ময়নাতদন্তের জন্য যশোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান।

উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের কাউন্সিলর আনজুয়ারা বলেন, ‘যেদিন সে বিদেশ থেকে বাড়ি ফিরল, সেদিনই তাকে হত্যা করল! এটা দুঃখজনক।’
তিনি আরও বলেন, ‘এর আগে একবার জামালকে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে তার স্ত্রী।