Home > বিনোদন > রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার অভিনন্দন

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খাপছাড়া ছিলেন না মোস্তাফিজুর রহমান। বল হাতে ২ উইকেট পেলেও খরুচে ছিলেন তিনি। তবে সোমবার সেই উইন্ডিজের বিপক্ষে বল হাতে পুরনো ছন্দে দেখা গেছে তাকে। ৪ উইকেট তুলে নিয়ে হয়েছেন ম্যাচসেরা।
বাংলাদেশকে ফাইনালে নিয়ে যেতে রেখেছেন অবদান। তিনি বলছেন, আবহাওয়া বদলে যাওয়ার কারণেই তার পারফরম্যান্স উন্নতি হয়েছে।

বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ডের আবহাওয়ার মধ্যে পার্থক্য আকাশ-পাতাল। এখানকার প্রচণ্ড গরমে অনুশীলন করে গেছেন টাইগাররা। সেখানে আবার অনেক ঠাণ্ডা। স্বাভাবিকভাবেই আইরিশ কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে কষ্ট হচ্ছিল লাল-সবুজ জার্সিধারীদের।স্বীকার করেছেন মোস্তাফিজ নিজেই। তবে সবশেষ ম্যাচ চলাকালীন আকাশে রোদ থাকায় বোলিং করতে কষ্ট হয়নি তার। যে কারণে এমন পারফর্ম করতে পেরেছেন তিনি।

ফিজ বলেন, আমাদের দেশে গরম, এখানে ঠাণ্ডা। ঠাণ্ডায় আমার খুব কষ্ট হয়। আমাদের দেশে ৩২-৩৩ ডিগ্রিতে খেলে এসেছি। এখানে ৭-৮ ডিগ্রি। খাপ খাওয়ানো একটু কঠিন। আস্তে আস্তে ঠিক হচ্ছে। এখন গরম হচ্ছে একটু।ফাইনালের আগে আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছেন মোস্তাফিজ, যা আসন্ন বিশ্বকাপে কাজে আসবে বলে মনে করেন তিনি। কাটার মাস্টার বলেন, আমি চেষ্টা করেছি। ভালো করলে আত্মবিশ্বাস থাকে। প্রথম ম্যাচটা ভালো হয়নি। এটা ভালো হলো। বিশ্বকাপ আছে সামনে। চেষ্টা করব ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে।

শেয়ার করুন :

বদলেছে আবহাওয়া, বদলে গেছেন মোস্তাফিজ

প্রকাশের সময়ঃ ৩:২৫ বিকাল

প্রকাশের তারিখঃ মে ১৪, ২০১৯

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খাপছাড়া ছিলেন না মোস্তাফিজুর রহমান। বল হাতে ২ উইকেট পেলেও খরুচে ছিলেন তিনি। তবে সোমবার সেই উইন্ডিজের বিপক্ষে বল হাতে পুরনো ছন্দে দেখা গেছে তাকে। ৪ উইকেট তুলে নিয়ে হয়েছেন ম্যাচসেরা।
বাংলাদেশকে ফাইনালে নিয়ে যেতে রেখেছেন অবদান। তিনি বলছেন, আবহাওয়া বদলে যাওয়ার কারণেই তার পারফরম্যান্স উন্নতি হয়েছে।

বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ডের আবহাওয়ার মধ্যে পার্থক্য আকাশ-পাতাল। এখানকার প্রচণ্ড গরমে অনুশীলন করে গেছেন টাইগাররা। সেখানে আবার অনেক ঠাণ্ডা। স্বাভাবিকভাবেই আইরিশ কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে কষ্ট হচ্ছিল লাল-সবুজ জার্সিধারীদের।স্বীকার করেছেন মোস্তাফিজ নিজেই। তবে সবশেষ ম্যাচ চলাকালীন আকাশে রোদ থাকায় বোলিং করতে কষ্ট হয়নি তার। যে কারণে এমন পারফর্ম করতে পেরেছেন তিনি।

ফিজ বলেন, আমাদের দেশে গরম, এখানে ঠাণ্ডা। ঠাণ্ডায় আমার খুব কষ্ট হয়। আমাদের দেশে ৩২-৩৩ ডিগ্রিতে খেলে এসেছি। এখানে ৭-৮ ডিগ্রি। খাপ খাওয়ানো একটু কঠিন। আস্তে আস্তে ঠিক হচ্ছে। এখন গরম হচ্ছে একটু।ফাইনালের আগে আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছেন মোস্তাফিজ, যা আসন্ন বিশ্বকাপে কাজে আসবে বলে মনে করেন তিনি। কাটার মাস্টার বলেন, আমি চেষ্টা করেছি। ভালো করলে আত্মবিশ্বাস থাকে। প্রথম ম্যাচটা ভালো হয়নি। এটা ভালো হলো। বিশ্বকাপ আছে সামনে। চেষ্টা করব ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে।