ফেসবুক আসক্ত প্রেমিকাকে বিয়েতে ‘না’, তরুণের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

আন্তর্জাতিক

ফেসবুকে আসক্ত প্রেমিকাকে বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় এক তরুণের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হয়েছে। একটি শপিংমলে কাজ করার সময়ে প্রেমে জড়িয়ে বিবাহবহির্ভূত শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন তারা।

উভয় পরিবার তাদের সম্পর্ক মেনে বিয়েতেও রাজি হয়েছিল। কিন্তু প্রেমিকা ফেসবুকে আসক্ত এবং সামাজিকমাধ্যমে তার অনেক ছেলেবন্ধু রয়েছে অভিযোগ করে তাকে বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেন অভিযুক্ত তরুণ। এর পর পরই ওই তরুণী তার সঙ্গে প্রেমিকের আগের শারীরিক সম্পর্ককে ধর্ষণ দাবি

করে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের রাজধানী কলকাতার নেতাজিনগর থানায় মামলা করে দেন।

অভিযুক্ত তরুণ ২৪ বছরের সোমনাথ কুণ্ডু। তার প্রেমিকার বয়স ২০ বছর। তারা হাইল্যান্ড পার্কে একটি শপিংমলে কাজ করত। কাজের সূত্রে দুই তরুণ-তরুণীর মধ্যে আলাপ হয়। পরে তারা বন্ধুত্ব করেন। ধীরে ধীরে ঘনিষ্ঠতা বাড়লে তারা প্রেমে জড়িয়ে শারীরিক সম্পর্ক করেন।

জানা গেছে, দুজনের বিয়ের বিষয়ে উভয় পরিবারের মধ্যে পাক্কা কথা হয়েছিল। কিন্তু ফেসবুক আসক্তি নিয়ে সোমনাথের সঙ্গে প্রেমিকার মাঝেমধ্যেই ঝগড়া হতো।

সোমনাথের দাবি ছিল, প্রেমিকার ফেসবুকে এত ছেলেবন্ধু রাখতে পারবে না। কিন্তু তরুণী তার এ আপত্তি মানতে রাজি ছিল না। এ নিয়ে বুধবার রাতে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে উভয়ের মধ্যে প্রচণ্ড ঝগড়া হয়। এর পর সোমনাথ ওই তরুণীর সঙ্গে বিয়ে দূরে থাক কোনো ধরনের সম্পর্ক রাখবেন না বলে ঘোষণা দেন। এদিকে প্রেমিকের এমন ঘোষণার পর নেতাজিনগর থানায় ছুটে যান তরুণী। সেখানে প্রেমিক সোমনাথের বিরুদ্ধে তিনি ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন।

তরুণীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে সোমনাথের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বহুবার তার সঙ্গে সোমনাথ শারীরিক সম্পর্ক করেছেন। এ অভিযোগের পর সোমনাথকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *