বিজিএমইএ ভবনের ‘দফারফা’ ২৭ মার্চ

ঢাকা

বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) রাজধানীর হাতিরঝিলে অবৈধভাবে তৈরি করা তাদের বহুতল ভবনটি ভাঙার জন্য আরো এক বছর সময় চেয়ে আবেদনের ওপর শুনানি শেষ হয়েছে।

রোববার সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ এ শুনানি শেষ করে ২৭ মার্চ মঙ্গলবার আদেশের জন্য দিন রেখেছেন।

বিজিএমইএর পক্ষে শুনানি করেন কামরুল হক সিদ্দিকী। পরে তিনি গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত বছরের অক্টোবরে ভবন ভাঙার জন্য এক বছরের সময় চেয়ে আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদন করে বিজিএমইএ।

সময় চাওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়েছিল, রাজউক নতুন ভবনের জন্য জমি দিয়েছে, এখন সবকিছু প্রক্রিয়াধীন আছে। ভবন থেকে সবকিছু শিফট করতে তো অনেক সময়ের প্রয়োজন। তাই সময় চেয়ে আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদন করা হয়েছে।

এর আগে গত বছরের গত ১২ মার্চ বিজিএমইএকে ছয় মাসের সময় দেয় আপিল বিভাগ।

২০১১ সালে হাইকোর্ট রায় দিয়েছিলেন। এরপর ২০১৬ সালের ২ জুন আপিল বিভাগ তা বহাল রেখেছেন। কিন্তু এ সময়ের মধ্যে সরানোর কোনো চেষ্টা করেননি। এরপর ছয় মাসের সময় দিয়ে আবেদনটির নিষ্পত্তি করে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *