আইয়ুব বাচ্চু মারা গেছেন

বিনোদন

বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন)। তিনি একাধারে গায়ক, লিডগিটারিস্ট, গীতিকার, সুরকার, প্লেব্যাক শিল্পী ছিলেন।

১৮ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটের দিকে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। স্কয়ার হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে বিষয়টি প্রিয়.কমকে নিশ্চিত করা হয়েছে।

তারা জানিয়েছেন, জনপ্রিয় এ সংগীতশিল্পীর মরদেহ এখনো জরুরি বিভাগে রয়েছে।

১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রাম শহরে জন্মগ্রহণ করেন গুণী এ শিল্পী। সংগীত জীবনের দীর্ঘ চার দশকে অসংখ্য হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া গান আইয়ুব বাচ্চু উপহার দিয়েছেন শ্রোতাদের। তার সৃষ্টি অনেক গান মানুষের আন্তরে গেঁথে আছে।

আইয়ুব বাচ্চুর সংগীত জগতে যাত্রা হয় ১৯৭৮ সালে ‘ফিলিংস’ ব্যান্ডের মাধ্যমে। শ্রোতা-ভক্তদের কাছে এবি নামেও পরিচিত তিনি। ডাক নাম রবিন। মূলত রক ঘরানার কণ্ঠের অধিকারী হলেও আধুনিক, ক্লাসিকাল ও লোকগীতি দিয়েও শ্রোতাদের মুগ্ধ করেছেন তিনি। ১৯৯১ সালে জন্ম নেওয়া ‘এলআরবি’ ব্যান্ড দলের লিড গিটারিস্ট ও ভোকাল ছিলেন তিনি। এর আগে তিনি প্রায় দশ বছর সোলস ব্যান্ডের সঙ্গে লিড গিটারিস্ট হিসেবে যুক্ত ছিলেন।

তার কণ্ঠে গাওয়া উল্লেখযোগ্য গানগুলোর মধ্যে রয়েছে, ‘চলো বদলে যাই’, ‘রূপালি গিটার’ ‘কষ্ট পেতে ভালোবাসি’ ‘ঘুম ভাঙ্গা শহরে’, ‘হকার’ ‘অবাক হৃদয়’ ‘আমিও মানুষ’ ‘কষ্ট কাকে বলে’, ‘সুখ’, ‘মন চাইলে মন পাবে’সহ অসংখ্য গান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *