”ক্ষুদে ডাক্তার কর্মসূচি অন্তর্ভুক্ত” বন্দর ইপিআই জোনের জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্র সপ্তাহ পালনে পরিকল্পনা সভা

চট্টগ্রাম

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালনায়ে এবং সিটি কর্পোরেশন নিয়ন্ত্রিত বন্দর ইপিআই জোনের আওতায় ৬টি ওয়ার্ডে আগামী ০১ এ্রপিল থেকে ৭এপ্রিল পর্যন্ত জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্র সপ্তাহ পালনের জন্য জোন পর্যায়ে এক পরিকল্পনা সভা বন্দরটিলাস্থ ওয়ার্ড অফিসে জোনাল মেডিকেল অফিসার ডা :হাসান মুরাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ২৯শে মার্চ সকাল ১১টায় অুনষ্ঠিত হয়।
সরকার এবারই প্রথম জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্র সপ্তাহ পালনের দিন প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে ”ক্ষুদে ডাক্তার” কার্যক্রমের আওতায় কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত দেন বলে বন্দর ইপিআই জোন সূত্রে জানা গেছে। ”ক্ষুদে ডাক্তার”রে মাধ্যমে ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য পরিচচা, স্বাস্থ্য সম্মত জীবন –যাপন এবং রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা গ্রহনে সচেতনতা সৃষ্টির উপর গুরুত্ব- আরোপ করেন। ছাত্র-ছাত্রীদের নৈতিক চরিত্র ও সার্বিক স্বাস্থ্য উন্নয়ন কে প্রচার-প্রসরতা সৃষ্টির আহবান থাকবে বলেন।
আগামী ০১ এ্রপিল থেকে ৭এপ্রিল পর্যন্ত জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্র সপ্তাহ পালনে বন্দও জোনের ৬টি ওয়ার্ডে ৫-১৬বছর বয়সী সকল শিক্ষার্থীদেও বিনামূল্যে একটি কওে কৃমি নাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে।এই কর্মসূচিটি শুধুমাত্র প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্টানে পরিচালিত হবে।
পরিকল্পনা সভা আরো উপস্থিত ছিলেন -৪০নং ওয়ার্ড মেডিকেল অফিসার ডা: ফেরদৌসী বেগম,বন্দর থানা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মিসেস খালেদা পারভিন,মমতার সার্ভিস প্রমোট অফিসার মোরশেদ আলম,স্থানীয় হালিশহর একাদশ ক্লাবের আহবায়ক সাংইুদক বাবুল হোসেন বাবলা।
ইপিআই টেকনিশান বাবু মৃনাল দাশের পরিচালনায়ে সভাতে আরো উপস্থিত ছিলেন স্কুল কমিটির প্রতিনিধি কাজী আজিজুল হক, সিরাজুল মোস্তফা, সার্কেলের সভাপতি ফয়সাল মাহমুদ, শিক্ষক বাবুল হক বাবর প্রমুখ।
চট্টগামে সিটি মেয়রের নেতৃতে ¡জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্র সপ্তাহ প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের ”ক্ষুদে ডাক্তার” কার্যক্রমটি যথাযথ ভাবে পালনের জন্য নগরবাসীর প্রতি আহবান জানিয়িছেন বন্দর ইপিআই জোন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *