শিশু জয়নাবের ধর্ষক-খুনির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

আন্তর্জাতিক

পাকিস্তানি শিশু জয়নাব আনসারিকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামীর ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে। বুধবার লাহোরের কোট লাখপাট কারাগারে ইমরান আলী নামের ওই হত্যাকারীর ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি দেশটির সন্ত্রাসবিরোধী আদালত (এটিসি) চারটি অভিযোগ আমলে নিয়ে তার মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন।

গত ৪ জানুয়ারি কোরান শিক্ষার ক্লাসে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয় পাঞ্জাবের ছয় বছরের শিশু জয়নাব আনসারি। বাবা-মা সৌদিতে ওমরাহ পালনে যাওয়ায় খালার বাড়িতে থাকতো সে। গত ৯ জানুয়ারি শহরের একটি আবর্জনার স্তুপে তার লাশ পাওয়া যায়। ময়নাতদন্তে জানা যায় তাকে ধর্ষণের পর গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে।

২৪ বছর বয়সী ইমরান আলী নামের ওই হত্যাকারী ও ধর্ষক একজন ‘সিরিয়াল কিলার’। গত দুই বছরে ৬ থেকে ৭ বছরের একাধিক মেয়েশিশুকে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

এ ঘটনার পাকিস্তান জুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। ‘জাস্টিস ফর জয়নাব’ দাবিতে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে সেখানকার মানুষ। এতে পুলিশের গুলিতে দুজন নিহত হয়।

মেয়ের হত্যাকারীর ফাঁসি হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন জয়নাবের বাবা আমিন আনসারি। তিনি বলেন, ‘আমি নিজের চোখে তাঁর ভয়ংকর পরিণতি দেখেছি। তাকে ফাঁসি কাষ্ঠে নেওয়া হয়। এক ঘণ্টা ধরে ঝুলিয়ে রাখা হয়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *