৯ বছর বয়সেই জাতীয় দলে অভিষেক হতো মুজিবের

ক্রিকেট

শিরোনাম দেখে হয়তো অবাক হয়েছেন। হওয়াই কথা। এমন এক অদ্ভূত ঘটনার জম্ম দিলেন আফগান তরুণ মুজিব-উর রহমান। জাতীয় দলে তার আবির্ভাব অনেকটাই রূপকথার মত।

এই আফগান স্পিনারের বর্তমান বয়স ১৭ বছর। বয়সের দিক থেকে এখনও যুব দলে খেলার যোগ্যতা রাখেন। ২০১৬ সালে একদিনের ক্রিকেটের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পা রাখেন তিনি।

এরই মধ্যে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে খেলেছেন ১টি টেস্ট, ২৩টি ওয়ানডে ও ৭টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। পাশাপাশি স্বল্প সময়ে নিজের সেরাটার জানানও দিয়েছেন ক্রিকেট বিশ্বকে। আফগানদের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত ১টি টেস্ট ম্যাচ খেলা তারা। সেখানে অভিষেক হয় মুজিবেরও। অভিষেক টেস্টে নিয়েছেন ১ উইকেট। ২৩টি ওয়ানডে ম্যাচে নিজের ঝুলিতে নিয়েছেন ৪৪ উইকেট এবং ৭টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে শিকার করেছেন ৯ উইকেট।

এখানেই শেষ নয়; খেলেছেন ভারতের প্রিমিয়িার লিগেও (আইপিএল)। সেখানে ১১ ম্যাচে নিয়েছেন ১৪ উইকেট। এখন খেলছেন এপিএল, খেলবেন বিপিএলে ডাক পেয়েছেন বিগ ব্যাসে।

এবার জেনে নিন মুজিবের সেই রুপ কথার গল্প। ২০১০ সালে আফগানিস্তানের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন পাকিস্তানের রশিদ লতিফ। আর তিনি সম্প্রতি মুজিবকে নিয়ে বোমা ফাটান।

রশিদ একটি পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘দায়িত্ব পালনকালে আফগানিস্তান মূল দলের জন্য মুজিবকে ট্রায়াল দিতে দেখেছিলাম। অবাক হলাম, ২০০১ সালে জন্মগ্রহণ করা ক্রিকেটার কী করে ২০১০ সালে মূল দলে ট্রায়াল দিয়েছিলেন। এই বিষয়টি অবশ্যই ভাববার বিষয়।’

ঐ সংবাদমাধ্যমকে রশিদ লতিফ বলেন, ‘আমি আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী হামিদ শিনওয়ারি কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়ে আফগানিস্তানে গিয়েছিলাম এবং কাবুলে একটি শর্ট ক্যাম্প করেছিলাম যেখানে বেশ কিছু ভালো ক্রিকেটার ছিল। মুজিব-উর রহমান, হাশমতউল্লাহ শাহিদি, জাজাই, আমির হামজা ও বেশ কিছু ভালো ক্রিকেটার ঐ ট্রায়াল ক্যাম্পে ছিল।’

রশিদ লতিফের এই কথা সত্যি হলে এটুকু নিশ্চিত, ২০১০ সালেও মূল দলে খেলার মত যোগ্যতা মুজিবের ছিল, যা আদৌ ৯ বছর বয়সে অকল্পনীয়। তাহলে কি বয়স লুকিয়েছেন মুজিব? কিন্তু তার গঠন দেখেও তো বুঝা মুশকিল সে বয়স লুকিয়েছে কিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *