বিশ্বের এই প্রথম টাইগারদের যে কৌশল শিখাচ্ছেন স্টিভ রোডস

ক্রিকেট

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট এবং তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের জন্য প্রস্তুতি শুরু করেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। আজ মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সকাল ১০ টা থেকে ব্যস্ত হয়ে পড়েন ডাক পাওয়া জাতীয় দলের সকল ক্রিকেটাররা। প্রথম দিনেই কোচ স্টিভ রোডস এর অধীনে এক বিশেষ অনুশীলন করেছে টাইগাররা।

বাংলাদেশ ক্রিকেটের মূল সমস্যা ডট বল! এশিয়া কাপে ৬ ম্যাচে বাংলাদেশ ডট বল খেলেছে ৯৭৩টি। ভাবা যায়? ম্যাচ গড়ে ১৬২ বলই ডট! দুর্বোধ্য বোলিং হচ্ছে বলেই কি ব্যাটসম্যানরা ভুগছেন? মোটেও না। ব্যাটসম্যানদের মানসিক শক্তি পিছিয়ে দিচ্ছে বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের।

স্ট্রাইক রোটেট করে, সিঙ্গেল বা ডাবল রানে স্কোরবোর্ড সচল রাখা যায় অনায়াসে। সেখানে ব্যাটসম্যানদের ডট বলে বাড়ে চাপ। সেই চাপ সামাল দিতে বড় শট একমাত্র অপশন। কিন্তু বড় শট খেলতে গিয়ে বিপদে পড়ার ভুড়িভুড়ি অভিজ্ঞতাও আছে। তাই টপ ও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের থেকে স্ট্রাইক রোটেটের প্রতিশ্রুতি চাওয়া হচ্ছে ঢালাওভাবে।

জিম্বাবুয়ে সিরিজে ডট বলের সমস্যা কাটাতে বদ্ধপরিকর টিম ম্যানেজমেন্ট। তাইতো আজ প্রথম দিনের অনুশীলনে সবচেয়ে বেশি জোর দেওয়া হয়েছে স্ট্রাইক রোটেটে। ব্যাটসম্যানদের পরীক্ষা নিয়েছেন প্রধান কোচ স্টিভ রোডস। নিশানা ঠিক করে, ফিল্ডিং পজিশনে জাল বিছিয়ে ব্যাটসম্যানদের এক-দুই রানের জন্য খেলার চেষ্টা করা হয়েছে।

পালাক্রমে রোডসের এ ক্লাসে যোগ দিয়েছেন প্রথম দিনের অনুশীলনে থাকা ১৩ ক্রিকেটার। ভাইরাস জ্বরে আক্রান্ত রুবেল হোসেন ও মেহেদী হাসান মিরাজ ছিলেন না প্রথম দিনের অনুশীলনে। কোচের এ অনুশীলনকে স্বাগত জানিয়েছে পুরো দল।

দলের নতুন সদস্য ফজলে মাহমুদ রাব্বী বললেন, ‘স্ট্রাইক রোটেশন নিয়ে কাজ করেছি আমরা। নতুন নতুন জিনিস আছে। ছোট ছোট ব্যাপার, এই সব নিয়েই কাজ করছি। ছোট ছোট ব্যাপার, যার মধ্যে পরিবর্তন আনলে খেলাটা ভালো হয়, সেই দিকেই সবাই মনোযোগ দিচ্ছি।’

ডট বল শুধু এশিয়া কাপ নয়, এর আগেও ভুগিয়েছে বাংলাদেশকে। স্কোরবোর্ড সমৃদ্ধ না হওয়ার বড় কারণও এ ডট বল। জিম্বাবুয়ে সিরিজে ডট বলের সংখ্যা কমালে সাফল্য মিলবে সহজেই। নয়তো বাড়বে চাপ। সেই চাপ সামলে ফল সব সময় পক্ষে আসার সম্ভাবনা ফিফটি-ফিফটি। তাইতো অচিরেই কমাতে হবে ডট বলের সংখ্যাও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *