এবার নিজেই নিজের সব রেকর্ড ভেঙ্গে দিলো রশিদ খান

ক্রিকেট

প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২৪৪ রান তোলে বালখ। ওপেনার গেইল করেছেন ৮০ রান। ক্যারিবিয়ান দানবের ইনিংসে ছক্কার মার ছিল ১০টি, আর চার ২টি। অর্থাৎ চার-ছক্কা থেকেই এসেছে ৬৮ রান! এছাড়া বালখের পক্ষে দারউস রাসুলি পাঁচটি, মোনাওয়ারা ও মোহাম্মদ নবি তিনটি করে এবং আশরাফ দুটি ছক্কা মেরেছেন। কাবুল অধিনায়ক রশিদ খান ৪ ওভারে দিয়েছেন ৪০ রান। পরে জবাব দিতে নেমে রেকর্ডই গড়ে ফেলেন কাবুল ওপেনার হযরতুল্লাহ জাজাই।

মাত্র ১৭ বলে ৬২ রান করেন আফগানিস্তানের ২০ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। এর মধ্যে এক ওভারে ছয়টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন জাজাই। ওই ওভার থেকে একটি ওয়াইডসহ মোট রান এসেছে ৩৭! জাজাই ফিফটি ছুঁয়েছেন মাত্র ১২ বলে, প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে এটা দ্রুততম ফিফটি ছোঁয়ার রেকর্ড।

ম্যাচটা জিততে না পারলেও কাছাকাছি চলে গিয়েছিল কাবুল। নির্ধারিত ওভারে সাত উইকেটে ২২৩ রান তোলে দলটি। ইনিংসে কাবুলের ব্যাটসম্যানরা ছক্কা হাঁকিয়েছেন ১৪টি। এর মধ্যে জাজাইয়ের ছক্কা সাতটি, রশিদ খান মেরেছেন দুটি। ছক্কার ফুলঝুরিতে কালকের পুরো ম্যাচটাকেই মনে হলো যেনো হাইলাইটস!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *