ব্যানার-ফেস্টুনে সৌন্দর্য হারাচ্ছে কুয়াকাটা

ভ্রমন

পোস্টার, ব্যানার ও নানা ফেস্টুনে দিন দিন ঢাকা পড়ছে সাগরকন্যা খ্যাত পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা। এতে হারাতে বসেছে অপার সৌন্দর্যের প্রাকৃতিক রূপ। এসব আবর্জনা অপসারণের দাবি জানিয়েছেন পর্যটকরা। পাশাপাশি, নির্দিষ্ট কোনো টার্মিনাল না থাকায় গাড়ি পার্কিংয়ে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন দেশি-বিদেশি পর্যটকরা। অবশ্য, সমস্যা সমাধানে শিগগিরই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় পৌর মেয়র।

সূর্যোদয়ের বেলাভূমি ও সাগরকন্যা খ্যাত পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় বছরজুড়ে ভিড় করেন পর্যটকরা। তবে, দক্ষিণের এ সমুদ্র সৈকতের জিরোপয়েন্ট এলাকাসহ বিভিন্ন পয়েন্টে রাজনৈতিক দল ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুনে ঢাকা পড়ছে এর প্রাকৃতিক রূপ ও সৌন্দর্য।

পাশাপাশি, নির্দিষ্ট কোনো টার্মিনাল না থাকায় পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটায় রাস্তার উপর সারিবদ্ধভাবে গাড়ি পার্কিং করতে বাধ্য হচ্ছেন পরিবহন শ্রমিকরা। এতে দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন পথচারী পর্যটক ও স্থানীয়রা।

একজন বাস চালক বলেন, ‘আশপাশে কোন বাস টার্মিনাল না থাকায় আমরা রাস্তার উপরেই বাস পার্কিং করতে বাধ্য হই।’

এ অবস্থায় অবৈধ আবর্জনা অপসারণের পাশাপাশি টার্মিনাল নির্মাণের কাজ শিগগিরই শুরু হবে বলে জানিয়েছেন পৌর মেয়র আবদুল বারেক মোল্লা।

তিনি বলেন, ‘নেতৃত্ব দিচ্ছে ঢাকায় আর ব্যানার ফেস্টুন দেয় কুয়াকাটায়। আবার নেতৃত্ব দিচ্ছে পটুয়াখালী অথচ ব্যানার ঝুলিয়ে রেখেছে কুয়াকাটায়। এই সকল ফেস্টুন-ব্যানার আমরা পৌরসভার পক্ষ থেকে শতভাগ অপসারণ করাবো। আর বাস স্ট্যান্ডের বিষয়টিও সরকারের দৃষ্টিতে এনেছি। কিছুদিনের মধ্যেই টেন্ডার হবে এবং কাজ শুরু হবে।’

কুয়াকাটার জিরোপয়েন্ট থেকে প্রায় ৩ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে সড়কের দু’পাশে প্রতিদিন ৪ শতাধিক গাড়ি পার্কিং করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *