জাতীয় পার্টি ছাড়া কোনো দলই গণতন্ত্র আর উন্নয়ন দিতে পারেনি

রাজনীতি

জাতীয় পার্টি ছাড়া কোনো রাজনৈতিক দলই এদেশে সুশাসন, গণতন্ত্র আর উন্নয়ন দিতে পারেনি বলে দাবি করেছেন দলটির মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার। তিনি বলেছেন, দেশের মানুষ আগামী জাতীয় নির্বাচনে জাতীয় পার্টির লাঙলে ভোট দিয়ে তাদের আস্থা ব্যক্ত করবে। গত দুই যুগের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড বিবেচনায় মানুষের আস্থা এখন জাতীয় পার্টির ওপর। কারণ, জাতীয় পার্টি ছাড়া কোনো দলই গণতন্ত্র আর উন্নয়ন দিতে পারেনি।

সোমবার জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয়ের মিলনায়তনে সম্মিলিত জাতীয় জোটের লিয়াজোঁ কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে রুহুল আমিন হাওলাদার এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘২০ অক্টোবর সম্মিলিত জাতীয় জোটের মহাসমাবেশ দেশের মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে। আগামী নির্বাচনে জয়ী হয়ে জাতীয় পার্টি দেশের মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করবে।’এ সময় মহাসমাবেশ সফল করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান জাপা মহাসচিব।

আলোচনায় অংশ নেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সুনীল শুভরায়, এস এম ফয়সল চিশতী, ইসলামী মহাজোটের চেয়ারম্যান আবু নাসের ওয়াহেদ ফারুক, কো-চেয়ারম্যান কে এম আবু হানিফ হৃদয়, মহাসচিব আবুল হাসনাত, ক্বারী মাওলানা আসাদুজ্জামান, ইসলামী ফ্রন্টের মহাসচিব মাওলানা এম এ মতিন, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শউম আবদুস সামাদ, অধ্যাপক এম এ মোমেন, সৈয়দ মোজাফ্ফর হোসেন, অ্যাডভোকেট ইসলাম উদ্দিন দুলাল, বিএনএর চেয়ারম্যান সেকান্দার আলী মনি, মহাসচিব অ্যাডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, মুখপাত্র শেখ মোস্তাফিজুর রহমান, মো. আকতার হোসেন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জালাল উদ্দিন আহম্মদ, আতাউল্লাহ আমিনী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতী শরাফত হুসেইন, অফিস সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, ঢাকা মহাসনগর সভাপতি এনামুল হক মুছা।

সভায় সম্মিলিত জাতীয় জোটের মহাসমাবেশ সফল করতে জাতীয় পার্টির মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদারকে আহ্বায়ক করে ১৫ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির সদস্যরা হলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, এস এম ফয়সল চিশতী, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, যুগ্ম মহাসচিব জহিরুল আলম রুবেল, ইসলামী ফ্রন্টের এম এ মতিন, শউম আবদুস সামাদ, ইসলামী মহাজোটের কে এম আবু হানিফ হৃদয়, ক্বারী মাওলানা মো. আসাদুজ্জামান, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মো. জালাল উদ্দিন আহমেদ, মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন, বিএনএর অ্যাডভোকট জাহাঙ্গীর হোসেন, শেখ মোস্তাফিজুর রহমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *